Tag Archive for সেহরি

ছোটবেলার রোজা

সেহরি খাবার জন্য পরিবারের ছোট সদস্যদের নিয়ম করে ডাকা হয় না। তারা ২/৪ টা রোজা রাখবে বাকি দিন ঠিক ১২ টায় নাস্তা করবে, অর্ধেক রোজা হবে। ২ টা অর্ধেক রোজা = ১ টা রোজা। যারা সব গুলো রাখতে চাইবে তাদেরকে বেশ ঝামেলা করতে হবে। সেহরি না করে ২/১ দিন রোজা রাখতে হবে, সারা দিন রোজা ভেঙ্গে ফেলার জন্য ধমক হজম করতে হবে। দুপুরর পর থেকে নিয়মিত ঘড়ির দিকে নজর রাখতে হবে, মাগরিবের আজান কখন হবে। এই রোজার সাথে সোয়াব পাবার খুব একটা সম্পর্ক নাই। রোজা ফরজ হবার বয়স তখন হয় নাই, রোজা রাখলে সোয়াব হবে এই চিন্তা করার মত বড়ও তখন হইনি। কবল মাত্র মানুষজন সব রোজা রাখছি শুনে চোখ বড় করে জিজ্ঞেস করবে তোমার বয়স কত? তাদের সামনে গর্বিত হাসি দিয়ে উত্তর দেয়ার জন্য আর ইশকুলে অন্যদের সাথে ভাব মারার জন্যই আসলে রোজা রাখা।

রোজাতে প্রধান সমস্যা পানির পিপাসা পাওয়া। দুপুর হবার সাথে সাথেই পানির পিপাসা মূর্তিমান আতংক হয়ে হাজির হত। ইফতারের পর হতে সেহরি পর্যন্ত পানি খাবার ব্যাপারে কোনো রকম গাফিলতি করতাম না। পানি খেয়ে পেট ঢোল বানাতাম আর নিয়মিত বাথরুম বুক করতাম। ৩ টায় ইস্কুল থেকে এসে নামাজ পড়তেও বেশ কষ্টই হত। বিকালে ছাদে যাবার পর একদম এ ভুলে যেতাম রোজা রেখেছি। আমাদের বাসার ছোট ছাদটাকে ফুটবল স্টেডিয়াম থেকে ক্রিকেটের মাঠ কোনটা বানাতেই বাকি রাখিনি আমরা। খেলা শেষ হত পানির পিপাসা চরমে উঠলে। তারপর থেকে বসার ঘরে বিশাল পাটিতে বসে থাকা আর আজানের অপেক্ষা। মুয়াজ্জিনের আজকে জ্বর আসে নাই তো?



রোজা , , , , , No comments